কানাইঘাটের রাজাগঞ্জ থেকে বিবাহিতা যুবতী অপহরণ।

নভেম্বর ২৯ ২০২০, ১১:৪২

Spread the love

কানাইঘাট উপজেলার তালবাড়ী-লক্ষ্মীপুর গ্রামে ২৬ বছর বয়সী এক বিবাহিতা যুবতীকে অপহরণের ঘটনা ঘটেছে। অপহরণের পর ৫ দিন পেরিয়ে গেলেও এখনও সেই যুবতীর সন্ধান মেলেনি। অপহরণকারী আব্দুল্লাহ এবং তার সঙ্গপাঙ্গদেরকেও এখনও খোঁজে পায়নি পুলিশ। ঘটনার পর যুবতীর পিতা বাদী হয়ে কানাইঘাট থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

কানাইঘাট থানায় দায়েরকৃত মামলার তথ্য অনুযায়ী গত ২৪ নভেম্বর সন্ধ্যায় মেয়েটিকে তার বাপের বাড়ীর আঙ্গিনা থেকে অপহরণ করা হয়। অপহরণকারী আব্দুল্লাহ উক্ত মেয়েটিকে অনেক দিন থেকে উত্যক্ত করে আসছিল। দুই মাস পূর্বে মেয়েটির বিয়ে হয়ে গেলেও আব্দুল্লাহ তার পিছু ছাড়েনি। মেয়েটিকে বাপের বাড়ীতে আসা-যাওয়ার সময় কয়েকবার উত্যক্ত করা হয়। এ নিয়ে মেয়ের পিতা গ্রামের মোড়লদের শরণাপন্ন হলে বখাটে আব্দুল্লাহ আরও ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে এবং মেয়েটিকে অপহরণের পরিকল্পনা করে।

গত ২৪ নভেম্বর সন্ধ্যার পর মেয়েটি তার প্রবাসী স্বামীর সাথে কথা বলার এক পর্যায়ে নেটওয়ার্ক সংযোগের জন্য ঘরের বাইরে এসে দাঁড়ালে পূর্ব থেকে ওৎ পেতে থাকা বখাটেরা এসে তাকে জোরপূর্বক বাড়ীর বাইরে নিয়ে যায় এবং রাস্তায় দাঁড়ানো একটি লেগুনা গাড়ীতে করে তাকে নিয়ে চলে যায়। মেয়েটির ধস্তাধস্তির শব্দ শুনে তার মা ঘর থেকে বাইরে আসলেও মেয়েকে উদ্ধার করতে ব্যর্থ হন। বেশী লোক জড়ো হওয়ার আগেই বখাটেরা মেয়েটিকে গাড়ীতে তোলে নিয়ে চলে যেতে সক্ষম হয়। ঘটনার পর পরই মেয়ের পিতা স্থানীয় বাজার থেকে বাড়ীতে ফিরে আসেন এবং গ্রামের লোকজন নিয়ে অনেক জায়গায় মেয়ের খোঁজ করেন। কিন্তু মেয়ের কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি।

এ ঘটনায় মেয়ের পিতা বাদী হয়ে কানাইঘাট থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলার প্রধান আসামী দাওয়াদারী গ্রামের আব্দুল্লাহ। অন্যান্য আসামীদের মধ্যে রয়েছে একই গ্রামের আব্দুল আহাদ, ইকবাল আহমদ, গোলাপগঞ্জের বাঘা ইউনিয়নের রামগঞ্জ গ্রামের জসিম উদ্দিন প্রমুখ।