গোয়াইনঘাট থানার ওসি আব্দুল আহাদ ও জামাই সুমন সহ ৯ জনের বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধার মামলা।

ফেব্রুয়ারি ১৫ ২০২১, ২০:৩৯

Spread the love

নিউজ ডেস্কঃ- গোয়াইনঘাটের ওসি (ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) আব্দুল আহাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। কোটি কোটি টাকার বিনিময়ে অবৈধভাবে পাথর উত্তোলনে সহযোগিতার অভিযোগে মামলাটি দায়ের করেছেন গোয়াইনঘাট থানার জাফলং নয়াবস্তি এলাকার বীর মুক্তিযোদ্ধা ইনছান আলী। মামলায় থানার এসআই আব্দুল মান্নানসহ আরো ৯ জনকে আসামি করা হয়।

গত রবিবার সিলেটের সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ আদালতে দুর্নীতি দমন আইনে মামলাটি ( নম্বর ১/২০২১) দায়ের করা হয়। আদালত মামলা গ্রহণ করে দুর্নীতি দমন কমিশনে তদন্তের জন্য পাঠিয়েছেন বলে জানিয়েছেন বাদী পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ শাহ আলম।

মামলায় ওসি ও এসআইসহ অন্যান্য আসামিরা সরকারি ও বাদির নিজের জায়গা থেকে পাথরখেকোদের পাথর উত্তোলনের সুযোগ করে দেওয়ার বিনিময়ে অবৈধভাবে কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন বলে উল্লেখ করেন ওই মুক্তিযোদ্ধা।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন, গোয়াইনঘাট থানার মামারবাজার এলাকার ইমরান হোসেন ওরফে জামাই সুমন, বল্লাঘাট এলাকার বর্তমান বাসিন্দা আলাউদ্দিন, নয়াবস্তির পাখি মিয়ার ছেলে সমেদ, ফয়জুল ইসলাম, মো. ফিরোজ, রহমত আলী ও সানু মিয়া।

মামলার এজহারে মুক্তিযোদ্ধা ইনছান আলী উল্লেখ করেন, গোয়াইনঘাট থানার ওসি মো. আব্দুল আহাদ ও এসআই আব্দুল মান্নান তার মৌরসী জায়গাসহ অন্যান্য জায়গা থেকে আসামিদের পাথর তুলতে দেওয়ার মাধ্যমে আর্থিক ফায়দা হাসিল করেন এবং তিনি নিষেধ করলে তার উপর বল প্রয়োগ করা হয়।

উল্লেখ্য, সরকারের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে সিলেটের পাথর কোয়ারিগুলো থেকে পাথর উত্তোলন নিয়ে কয়েকদিন আগে একটি খবর প্রকাশ হয়েছিল। সেই খবরে টাকার বিনিময়ে পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতার বিষয়টিও উল্লেখ করা হয়।