দাসপাড়া খিদিরপুরে প্রবাসীর বাসা চুরি : মহিলা চুর রিয়ার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ।

এপ্রিল ২৫ ২০২১, ১৭:৫৮

Spread the love

নিজস্ব প্রতিনিধি :- সিলেট শহরতলীর শাহপরাণ (রহ.) থানাধীন দাসপাড়া খিদিরপুর এলাকায় এক প্রবাসীর বাসা চুরির ঘটনার খবর পাওয়া গেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে গত ১৪ ই এপ্রিল ২০২১ ইং তারিখ ভোর অনুমান ০৫:০০ ঘটিকার সময়।

এই ঘটনায় দাসপাড়া খিদিরপুর এলাকার প্রবাসী আব্দুস সালামের স্ত্রী শিউলি বেগম (৩৭) বাদী হয়ে ২৪ ই এপ্রিল ২০২১ ইং তারিখে শাহপরাণ (রহ.) থানায় কানাইঘাট থানার ৮ নং বিরদল আটখুলা এলাকার গোলাম রাব্বানীর মেয়ে ফরজি বেগম রিয়া (৩০) কে অভিযুক্ত করে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, গত ০৩ মাস পূর্বে বিবাদীর বাসার একটি রুম ভাড়া নিয়ে বসবাস করতে থাকে আসামি ফরজি বেগম রিয়া (৩০)। গত ১৪ এপ্রিল ২০২১ ইং তারিখে ভোর অনুমান ০৫.০০ বিবাদী সহ উনার পরিবারের লোকজন ঘুমিয়ে ছিলেন। ওই সময় আসামি ফরজি বেগম রিয়া (৩০) অভিনব কায়দায় বিবাদীর বসতঘরে প্রবেশ করে স্টীলের আলমীরা খুলিয়া তথায় রক্ষিত নগদ ২০,০০০/( বিশ হাজার ) টাকা এবং ০৩ ভরি ওজনের ০২ টি স্বর্ণের চেইন যাহার মূল্য অনুমান ১,৫০,০০০/-( এক লক্ষ পঞ্চাশ হাজার) টাকা চুরি করিয়া নিয়া বাসা হইতে পালিয়ে যায় বিবাদী ফরজি বেগম রিয়া (৩০) কে সম্ভব্য সকল স্থানে খবর করা কালে আসামির ব্যবহৃত মোবাইল নং- (০১৭৫৪-৭৪৪০১৬) এতো নাম্বারে যোগাযোগ করিলে তাহার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। আসামির পিতা গোলাম রাব্বানীর ব্যবহৃত মোবাইল নং- (০১৭১৪-৪২৫৯৯৮) এতো নাম্বারে যোগাযোগ করিলে তিনি একেক সময়ে একেক কথা বলিয়া তাহার মেয়ের বিষয় এড়িয়ে যান।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত ফরজি বেগম রিয়ার উল্লেখিত মোবাইল নাম্বারে ফোন দিলে মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত আসামির বাবা গোলাম রাব্বানীর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, ৩ বছর ধরে ওই মেয়ের সাথে আমাদের কোন যোগাযোগ নেই।যোগাযোগ নেই তার কারণ জানতে চাইলে তিনি জানান, আমার বড় মেয়ে সে। আমরা তাকে এক জায়গায় বিয়ে দিয়েছিলাম সে স্বামীকে রেখে পালিয়ে গিয়ে আরেক ছেলেকে কোর্টের মাধ্যমে বিয়ে করেছে। তবে শুনেছি সে সিলেটে কোথায় বাসা ভাড়া দিয়ে থাকে। তিনি আরো সাফ জানিয়েছেন এই মেয়ের সাথে আমাদের কোন সম্পর্ক নেই।

এ বিষয় শাহপরাণ (রহঃ) থানার অফিসার ইনচার্জ আনিসুর রহমান অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সঠিক তদন্ত পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।